ঈদুল আযহার ছুটিতে আমিয়াখুম ভ্রমণ(২৩ আগস্ট)

** ** যাত্রার তারিখ ২৩ আগস্ট রাত ১০ টায়।
ফেরার তারিখ ২৭ আগস্ট সকাল ৬.৩০ টা (ঢাকায়)।

*** ভ্রমণের খরচঃ ৬৭০০/- টাকা প্রতি জন।

সাথে থাকছে ট্যুরগ্রুপ বিডির একটি করে টি শার্ট ।
ট্রিপ সাইজঃ ১৩ জন/২৬ জন।
——————————————
— ভ্রমণের স্থান সমুহঃ
– আমিয়াখুম
– সাতভাইখুম
– ভেলাখুম
– নাফাখুম
-রেমাক্রি
-পদ্মঝিরি
-বড়পাথর তিন্দু
সাথে কিছু সারপ্রাইজ তো থাকছেই (অবশ্য এই ট্রিপ পুরোই সারপ্রাইজে ভরা থাকবে)

** ভ্রমণের সম্ভাব্য বর্ণনাঃ

ডে-০০
আমরা ঢাকা থেকে বাসে করে যাবো বান্দরবান।

ডে-১
সকালে বাস থেকে নেমে যত দ্রুত সম্ভব নাস্তা সেরে চান্দের গাড়িতে চলে যাবো থানচি। পার্মিশন এর কাজ সেরে যত দ্রুত নৌকায় উঠা যায়। লাঞ্চ হবে নৌকায়ই (আমরা প্যাকেট খাবার নিয়ে নিবো)। সেখান থেকে টানা ৬-৮ ঘন্টার হাটা পথ। হেটে যাবো থুইসা পাড়া। সেখানেই রাত থাকা। (এবারের ট্রিপে কয়েকজনের ১০ ঘন্টা লেগেছিলো, আর অমানবিক কষ্ট করতে হয়েছিলো।)

ডে-২
ভোর ৬ টায় আমাদের হাটা শুরু হবে আমিয়াখুম এর পথে। হেটে যেতে দুই-তিন ঘন্টার মতন লাগবে। সেখানে মোটামুটি সারাদিনের প্ল্যান। সাতভাইখুম, ভেলাখুম ঘুরে বিকেলে বা সন্ধায় ফিরে আসবো আবার থুইসাপাড়া। রাত্রিযাপন থুইসা পাড়ায়। তবে আগে ফিরতে পারলে সামনে এগিয়ে গিয়ে অন্য কোন পাড়ায় থাকবো, পথ কমিয়ে রাখবো। (এই ট্রিপে এই দিনটা তুলনামূলক রিলাক্স)

ডে-৩
খুব ভোরে উঠে রেমাক্রির উদ্দেশ্যে হাটা শুরু করবো। পথেই আমরা পাবো নাইক্ষাং সং আর নাফাখুম।
নাফাখুমে কিছু সময় কাটিয়ে চলে যাবো রেমাক্রি। সেখান থেকে নৌকায় করে থানচি।
থানচি এসে খাবার খেয়ে চান্দের গাড়িতে করে চলে যাবো বান্দরবান। তারপর রাতের খাবার খেয়ে রাতের বাসে করে ঢাকায় ফিরে আসবো।

(সম্ভব হলে সকলের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে অন্য কোন স্থান।কোন কারনে ডেট একদিন বাড়লে ৫০০/৬০০ টাকা এক্সট্রা চার্জ হবে)।
——————————————–

******* ০ *******
কনফার্ম করার আগে যে ব্যাপার গুলো অবশ্যই বিবেচনা করতে হবেঃ

* এটি ভালো পরিমাণ এডভেঞ্চার ট্রিপ। এখানে প্রথমে ৭-৮ ঘন্টা হেটে থুইসাপাড়া যেতে হবে। যেতে দেবতাপাহাড় পারি দিতে হবে অর্থাৎ ৪/৫ ঘন্টার মত হেটে যেতে হবে, আবার ফিরেও আসতে হবে হেটে। আর পুরোটাই পাহাড়ি পথ, তাই যারা যেতে চাচ্ছেন অবশ্যই প্রস্তুতি নিয়েই যাবেন ।

* আপনাকে মোবাইল নেট এর বাইরে থাকতে হবে দুই দিনের মতন।

* খুব প্রয়োজনীয় ছাড়া কিছু নিবেন না, অতিরিক্ত কাপড় ভ্রমণের প্রধান শত্রু। দুটি থ্রি কোয়ার্টার প্যান্ট, একটি বা দুটি টি শার্ট নিলেই যথেষ্ট, কারণ ওখানে আপনাকে কেও দেখবেনা কেমন দেখাচ্ছে, বরং আপনার অতিরিক্ত ভারি কিছু আপনার ভ্রমণের আনন্দ নষ্ট করে দিবে।

* এখানে তিন বেলা খাবার পাবেন, যা খুব ই সাধারণ মানের, এমনকি নাফাখুম যাবার দিন দুপুরে খাবার থাকবে না। তাই নিজের ব্যাগ এ কিছু শুকনা খাবার (খেজুর, কিসমিস, বাদাম, বিস্কিট) রাখবেন।

* মোটামুটি কষ্ট করতে হবে ধরেই নিবেন, তাইলে কষ্ট টা অনাকাঙ্ক্ষিত মনে হবে না।

*যদি এই শর্ত গুলো জেনেও মনে হয় আপনি পারবেন,তাইলে আপনার ভ্রমণ ইতিহাস হয়ে থাকবে।।
*******
*******

**।*।*।** কনফার্ম করার Dead line: ১৫ আগস্ট (আসন ফাকা থাকা সাপেক্ষে)

** যা যা থাকছে এর মধ্যেঃ
-ঢাকা -বান্দরবন- ঢাকা নন এ/সি বাস এর টিকেট
– ২৪ তারিখ সকালের খাবার থেকে শুরু করে আসার দিন রাতের খাবার সহ প্রতিদিন ৩ বেলা খাবার ।
– নৌকা ও চান্দের গাড়ি বা বাসের ভাড়া (আভ্যন্তরীণ)
– গাইড এর খরচ ।

** যা থাকছেনাঃ
– কোন ব্যক্তিগত খরচ
-কোন ঔষধ

** যা সাথে নেওয়া উচিতঃ
-ন্যাশনাল আইডি এর ফটকপি এবং এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
– ট্র্যাকিং এর জন্য খুব পাতলা জুতা। নিউ মার্কেটের সামনে পেগাসাস নামে ১৩০-১৫০ টাকায় এই জুতা পাওয়া যায়। থানচি বাজারেও পাওয়া যায়
– মশা থেকে বাঁচার জন্য অডোমস । এবং ম্যালেরিয়ার প্রতিষেধক
Cap Doxycycline 100mg – ২৩ আগস্ট থেকে প্রতি রাতে খাবার পরে ১টা করে খাওয়া শুরু করবেন, মোট ৩৩টি ক্যাপসুল খেতে হবে।
– গামছা নিবেন পাতলা, কিন্তু বড় যেন রোদে মাথায় ঢেকে হাঁটা যায়
– সোলার লাইট
– ছোট টর্চ
– সানগ্লাস, হ্যাট, সান ক্রিম(যদি অতিরিক্ত ত্বক সচেতন হন)
– ব্রাশ
– প্রয়োজনীয় ঔষধ
– ক্যমেরা এবং এর এক্সট্রা ব্যাটারি
– চার্জের জন্য পাওয়ার ব্যাংক
– হ্যামক (এই ট্রিপে এক্সট্রা অনেক সময় পাওয়া যাবে, যেহেতু এটি রিলাক্স ট্রিপ। তাই হ্যামক নিয়ে নিয়েন সবাই। আর না থাকলে আমাদের শপ থেকেও নিতে পারবেন)
– বৃষ্টি হতে পারে সে সময়, তাই আপনার ব্যাগ এবং নিজেকে সেইভ করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে নিবেন। পলিথিন, রেইন কোট নিয়ে নিতে পারেন সাথে।
(কারো কিছু মনে পড়লে বইলেন, লিখে দিব)

(আমাদের ট্যুর গ্রুপ বিডির অফিসে এই ট্রাভেল গিয়ার গুলো পাওয়া যাবে, যাদের লাগবে আমাদের সাথেও যোগাযোগ করতে পারবেন)

*******

** টাকা পাঠানোর উপায় (ব্যাংক এ লেনদেন সবচেয়ে সেইফ এবং আমরাও উৎসাহিত করি ব্যাংক এ লেনদেন করতে, তারচেয়েও সেইফ হচ্ছে অফিসে এসে টাকা জমা দিয়ে ট্রিপ কনফার্মেশন টোকেন নিয়ে যাওয়া)

অফিসের ঠিকানাঃ আমাদের অফিসের ঠিকানাঃ বিল্ডিং নাম্বার ২০, রোড নাম্বার ২,
জি ব্লক, এভিনিউ ২, লাভ রোড, স্পাইসি ফুড কর্ণারের তিন তলা
মিরপুর ২ (স্ট্যাডিয়াম এর তিন নাম্বার গেট এর উলটা দিকে, ন্যাশনাল প্রাথমিক বিদ্যালয়য়ের পাশে)

Tour Group BD
#16411026552
Dutch Bangla Bank Ltd.
(Mirpur Branch)

01840238946 (মার্চেন্ট একাউন্ট, এই নাম্বারে খরচ সহ পেমেন্ট অপশন থেকে টাকা পাঠিয়ে ট্রিপের কনফার্মেশন বুঝে নিবেন)

016731112379 DBBL রকেট একাউন্ট
(খরচ সহ পাঠাতে হবে)
কেও এই ইভেন্টের হোস্ট এর কাছেও অথবা ট্যুর গ্রুপ বিডি এর অফিসে এসে টাকা জমা দিতে পারেন।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *