টাঙ্গুয়ার হাওরে বৃস্টি বিলাস টিজিবির সাথে(১২ জুলাই)

sylhet tgb

যাত্রার তারিখ ১২ জুলাই বৃহস্পতিবার রাত ১০ঃ৩০
ফেরার তারিখ ১৫ জুলাই রবিবার সকাল ৬ঃ০০ (ঢাকায়) ।

== অাজ দিন রাত্রী যাপন হবে ৬ কুড়ি কান্দা অার নয় কুড়ি বিলের দেশ সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওরে।
মাঝ রাত, চারপাশে সুনসান নিরবতা। আপনি একটা নৌকার ছাদে বসে আছেন, চারপাশের সব গ্রাম, গাছপালা কিংবা গাছে ঘুমিয়ে থাকা পাখিও জোস্ন্যার আলোয় স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে।

মাঝে মধ্যে পাখিরা ঘুমের ঘোরে ডেকে উঠছে মৃদু স্বরে, দূরের মেঘালয়ের পাহাড়গুলো চাঁদের রূপালি আলোয় স্পষ্টতই প্রতীয়মান। এমন একটি দৃশ্য আর সময় উপভোগ করার জন্য টাঙ্গুয়া হাওর বাংলাদেশের অন্যতম একটি যায়গা।
মেঘালয় পাহাড় থেকে ৩০টিরও বেশি ঝরা (ঝরণা) এসে মিশেছে এই হাওরে। দুই উপজেলার ১৮টি মৌজায় ৫১টি হাওরের সমন্বয়ে ৯,৭২৭ হেক্টর এলাকা নিয়ে টাঙ্গুয়ার হাওর সুনামগঞ্জের সবচেয়ে বড় জলাভূমি।
যার সৌন্দর্য চোখে না দেখে অনুভব করা এক কথায় অসম্ভব। বিশাল এই জলাভূমিটি বেড়ে উঠেছে একান্তই প্রকৃতির আপন খেয়ালে। বর্ষাকালে হাওরটির আয়তন প্রায় ২০ হাজার একর হয়ে যায়। আর তখনি দেখা যায় এর আসল রূপ।

** ভ্রমণের খরচঃ ৩৯০০ টাকা প্রতি জন। (নৌকায় রাত থাকা)

* নৌকায় না থেকে কেউ যদি কটেজে বা কারো বাড়িতে থাকতে চান, সেক্ষেত্রে আলাদা খরচ দিতে হবে ৪০০ টাকা।

-প্রত্যেকে একটি করে টিজিবির টি-শার্ট পাবেন।

** কনফার্ম করার Dead line: আসন খালি থাকা পর্যন্ত।

কনফার্ম করা জন্যে ২০৪০ টাকা পাঠাতে হবে। আর অফিসে এসে দিলে বা ব্যাংক এ দিলে ২০০০ টাকা। কোনভাবেই মৌখিক কনফার্ম গ্রহণযোগ্য নয়। যিনি আগে কনফার্ম করবেন, তিনিই প্রাধান্য পাবেন এবং সেই সিরিয়ালেই বাসের সিট দেয়া হবে।

** ভ্রমণের পরিকল্পনাঃ
-১২ জুলাই — রাতের বাসে করে সুনামগঞ্জ যাত্রা।

-১২ জুলাই — সুনামগঞ্জ নেমে লেগুনায় করে তাহিরপুর বাজার যাবো। ওয়াশরুম এর কাজ সেরে একেবারে নৌকায় উঠে নাস্তা করবো।
ট্রলার ছেড়ে চলে যাবো জাদুকাটা নদী, সেখানে পরিষ্কার পানিতে লাফালাফি করে দেখতে যাবো বারিক্কা টিলা। বারিক্কা টিলা ঘুরে আসার সময় বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শিমুল বাগান ঘুরে আসবো।শিমুল বাগান ঘুরে ফিরে আসবো ওয়াচ টাওয়ার এর দিকে। সেখানেই নৌকায় রাত্রি যাপন। কেউ নৌকায় না থাকতে চাইলে হাওর বিলাস নামে একটি কটেজ আছে, সেখানে থাকতে পারবেন।

– ১৪ জুলাই– সকালে নাস্তা সেরে ওয়াচ টাওয়ার এবং আশে পাশের এলাকা ঘুরে চলে যাবো টেকের ঘাট। সেখানে লাইমস্টোন লেক (নীলাদ্রি) এ গোসল করে লাকমাছরা ঘুরে ফিরবো তাহিরপুর বাজারের উদ্দেশ্যে।
সেখান থেকে লেগুনায় সুনামগঞ্জ, তারপর রাতের খাবার খেয়ে রাতের বাসে করে ঢাকায় ফেরা।

-১৫ জুলাই — সবাই ইনশাল্লাহ সকালে ঢাকায় ফিরে আসবো। এসে অফিস ধরতে পারবেন।

*** এই ট্রিপের কিছু বিষয়, ট্রিপ কনফার্ম করার আগে যেগুলো অবশ্যই জানতে হবেঃ
– এই ট্রিপে খাবার রান্না হবে নৌকায়, নৌকার ছাদে বসেই সবাই একসাথে মিলে মিশে খাবো।
– রান্না বান্না এবং পরিবেশন এর জন্য লোক থাকবে, তবে আমরা যারা এই কাজে পারদর্শী এবং আগ্রহী,তারা যে কোন সহায়তা করতে পারেন।
– নৌকায় থাকা ব্যাপারটা পুরোটাই ফিলের উপর নির্ভর করে। এমনিতে নৌকায় থাকা অবশ্যই কষ্টের, সেটি বিবেচনায় রাখবেন।
– নৌকায় খুব ছোট একটি ওয়াশ রুম রয়েছে, যেটি আসলে ইমার্জেন্সির জন্য থাকে। তবে এর আকৃতি অনেক ছোট। ওয়াশ রুম সমস্যার কোন সুনির্দিষ্ট সমাধান নেই। আমরা অবস্থা বুঝে কোন গ্রাম, বাড়িতে কিংবা খোলা যায়গায়ও…।। (বুঝেছেন নিশ্চই) 😛

** যা সরবরাহ করা হবেঃ

– যাওয়া-আসার নন এসি বাসের খরচ খরচ
– আভ্যন্তরীণ সকল যাতায়ত খরচ
– নৌকার খরচ
– বাবুর্চির খরচ এবং রান্নার আনুসাংগিক জিনিসপত্র
– প্রতিদিন ৩ বেলা মূল খাবার এবং প্রয়োজনীয় স্ন্যাক্স

** যা থাকছে নাঃ
– কোন ব্যক্তিগত খরচ
-কোন ঔষধ
– কোন ধরণের বীমা
– লাকমাছরায় যাওয়ার বাইক এর খরচ

** যা সাথে নেওয়া উচিতঃ
– তোয়ালে, গোসলের জন্যে কাপড়, অন্যান্য কাপড়
– সানগ্লাস, হ্যাট, সান ক্রিম
– ব্রাশ
-ফুল স্লিপ,চাদর
– প্রয়োজনীয় ঔষধ
– ক্যমেরা এবং এর এক্সট্রা ব্যাটারি
– চার্জের জন্য পাওয়ার ব্যাংক (যেহেতু দুইদিন নৌকায় থাকবো, এবং কোন রকম বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়া যাবে না)

** টাকা পাঠানোর উপায় (ব্যাংক এ লেনদেন সবচেয়ে সেইফ এবং আমরাও উৎসাহিত করি ব্যাংক এ লেনদেন করতে, তারচেয়েও সেইফ হচ্ছে অফিসে এসে টাকা জমা দিয়ে ট্রিপ কনফার্মেশন টোকেন নিয়ে যাওয়া)

অফিসের ঠিকানাঃ আমাদের অফিসের ঠিকানাঃ বিল্ডিং নাম্বার ২০, রোড নাম্বার ২,
জি ব্লক, এভিনিউ ২, লাভ রোড, প্রিংগেল ফুড কর্ণারের তিন তলা
মিরপুর ২ (স্ট্যাডিয়াম এর তিন নাম্বার গেট এর উলটা দিকে, ন্যাশনাল প্রাথমিক বিদ্যালয়য়ের পাশে)

Tour Group BD
#16411026552
Dutch Bangla Bank Ltd.
(Mirpur Branch)

01840238946 (মার্চেন্ট একাউন্ট, এই নাম্বারে খরচ সহ পেমেন্ট অপশন থেকে টাকা পাঠিয়ে ট্রিপের কনফার্মেশন বুঝে নিবেন)

016731112379 DBBL রকেট একাউন্ট
(খরচ সহ পাঠাতে হবে)

ইভেন্টের হোস্টের কাছেও জমা দিতে পারেন।

** শর্ত সমুহঃ
১- প্রথমেই একটি ভ্রমণ পিপাসু মন থাকতে হবে।
২- ভ্রমণকালীন যে কোন সমস্যা নিজেরা আলোচনা করে সমাধান করতে হবে।
৩- ভ্রমণ সুন্দর মত পরিচালনা করার জন্য সবাই আমাদেরকে সর্বাত্মক সহায়তা করতে হবে।
৪- আমরা শালিনতার মধ্যে থেকে সরবোচ্য আনন্দ উপভোগ করব।
৫- প্রতিটি যায়গা ই আমাদের নিজেদের, তাই তার সৌন্দর্য রক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব। যেন টুরিসম এর কোন ক্ষতি না হয়, সেটা সরবোচ্য প্রাধান্য দিতে হবে।
৬- অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে যে কোন সময় সিদ্ধান্ত বদলাতে পারে, যেটা আমরা সকলে মিলেই ঠিক করব।
৭- স্থানীয়দের সাথে কোন রকম বিরূপ আচরণ করা যাবে না। নতুন কারো সাথে কথা বলার ক্ষেত্রে প্রয়োজনে ট্রিপ হোস্টের সহায়তা নিতে হবে।
৮- কোনভাবেই কোন প্রকার মাদক সেবন বা সাথে বহন করা যাবে না। সাথে পাওয়া গেলে তাকে বা তাদেরকে তৎক্ষণাৎ ট্রিপ থেকে বহিষ্কার করা হতে পারে গ্রুপের অন্য সবার সাথে স্বীদ্ধান্ত নিয়ে।
৯- দুর্ঘটনা বলে কয়ে আসে না তাই যে কোন প্রকার দুর্ঘটনা সকলে মিলে মোকাবেলা করতে হবে ।
** ১০- এই গ্রুপ সম্পূর্ণ ভ্রমণপিপাসুদের গ্রুপ। এখানে কোন প্রকার অশ্লীলতার কোন রকম সুযোগ নেই। কোন রকম অসৎ উদ্দেশ্যে যদি কেও আমাদের সাথে ভ্রমণে যান, সেটি বুঝে যেতে আমাদের খুব বেশি সময় লাগে না। এবং সেই মোতাবেক আমরা ব্যবস্থা নিবো।

** ভ্রমণের জন্য যে কেও আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।
ছেলে/ মেয়ে সকলেই যেতে পারবে।

আমাদের গ্রুপ এর ঠিকানাঃ https://www.facebook.com/groups/TourgroupBd/
আমাদের পেজের ঠিকানাঃ https://www.facebook.com/TourgroupBd/

**যোগাযোগ- ০১৮৪০২৩৮৯৪৬, ম্যানেজার।এটি আমাদের অফিসিয়াল নাম্বার, এই নাম্বারে যোগাযোগ করে জেনে নিবেন ট্রিপের বিস্তারিত, এবং কনফার্ম করতেও এই নাম্বারটিতে যোগাযোগ করুন। তবে ট্রিপ এর সকল তথ্য পড়েও কোন জিজ্ঞাসা বা কনফিউশন থাকলে নিম্নোক্ত নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারবেন
রিমন-০১৮১৯৮৭৮৩৪০
রাহি- ০১৭২৩৫৮৬৮৭৭

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *